৮নং ওয়ার্ডের উত্তর দল্টা চৌধুরী বাড়ির ভাগ-বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে ছোট ভাইর আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন শিক্ষক বড় ও তার স্ত্রী 

ছবি : ভোরের পত্রিকা

মোঃ হাছানুর জামান কারী রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি:

রামগঞ্জ উপজেলার ১০নং ভাটরা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের উত্তর দল্টা চৌধুরী বাড়ির ভাগ-বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে  ছোট ভাইর আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন  নিঃসন্তান বড় ভাই ভাটরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ নূরে আলম (৪২) ও তার স্ত্রী আছিয়া বেগম (৪০)। আশংকাজনক অবস্থায় বড় ভাইকে রামগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

উত্তর দল্টা গ্রামের বাসিন্দা মৃত মোঃ নুরুল ইসলামের বড় ছেলে  ও ছোট ছেলে  খোরশেদ আলম (৪০) মধ্যে নিজেদের বাড়ির ভিটা ভাগ বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া-বিবাদ চলে আসছিল। এরই মধ্যে শনিবারের একটি তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে ছোট ভাই খোরশেদ আলম চৌকাঠ দিয়ে তার বড় ভাইয়ের ও তার স্ত্রী কে শরীরের বিভিন্ন জায়গা অতর্কিতভাবে আঘাত করেছে। ভাটরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ নূরে আলম বলেন আমি নিঃসন্তান হওয়ার কারণে তারা আমার সম্পত্তি দখল করার জন্য অতর্কিতভাবে হামলা করেছে। তারা বিভিন্নভাবে অত্যাচার নির্যাতন করে যাচ্ছে আমার পরিবারের উপর। একমাত্র আমার সম্পত্তি দখল করার জন্য তাদের মূল উদ্দেশ্য। আমি এবং আমার পরিবার নিরাপত্তাহীন ভুগছি তাই যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ করছি।

পরে তাদের দুজনকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ উপজেলা  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তবে তার স্ত্রী আছিয়া বেগম চিকিৎসা শেষ  বাড়িতে চলে যায়।এ বিষয়ে স্থানীয় মেম্বার মহসিন রাশেদ খলিফা জানায়, একটি মীমাংসিত ঘটনা। অথচ তারা ঝগড়ায় লিপ্ত হয়ে এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঘটিয়েছে।

রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমদাদুল হক বলেন, লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *